বৃহস্পতিবার, জুন ১৩, ২০২৪
Home Blog

রোহিঙ্গ ক্যাম্পে গোলাগুলি নিহত ৪ জন

বিসিএন২৪ ডেস্ক:রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দফায় দফায় গোলাগুলি নিহত ‍৪জন। আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গোলাগুলির এই ঘটনায় ঘটেছে। এ ঘটনায় আরও ২ রোহিঙ্গা গুরুতর আহত হয়েছেন।

আরাকান রোহিঙ্গা সালভেশন আর্মির (আরসা) ও রোহিঙ্গা সলিডারিটি অর্গানাইজেশন (আরএসও) বাহিনীর গোলাগুলির এই ঘটনা ঘটে।এই দুই গ্রুপের মধ্যে প্রায় এক ঘণ্টা গোলাগুলি চলে।

উখিয়া থানার ওসি মো. শামীম হোসেনের বরাত দিয়ে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানায়,৫ই নভেম্বর মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে ১৭ নম্বর ক্যাম্পের সি/৭৭ ব্লক এলাকায় ১০-১২ আরসা সদস্য একত্রিত হয়ে ক্যাম্পের এইস/৭৭ ব্লকের বাসিন্দা আবুল বশরের ছেলে আবুল কাসেম (৩৫) নামে ১ রোহিঙ্গাকে মাথায় গুলি করে হত্যা করে।

আরও পড়ুন যে কারণে নির্বাচন থেকে সরে দাড়ালেন আবদুস সবুর লিটন

এ ঘটনার খবর পেয়ে এপিবিএন পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছালে ঘটনাস্থল থেকে দুই গ্রুপের সদস্যরা পালিয়ে যান। পরবর্তী সময়ে পুলিশ তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করে।

 

 

সৌদি আারবে কর্মচারীরা একই সময়ে দুটি কাজ করতে পারবেন

বিসিএন২৪ডেস্ক:সৌদি মানবসম্পদ মন্ত্রণালয় স্পষ্ট করেছে যে বেসরকারি খাতের কর্মচারীরা একই সময়ে দুটি কাজ করতে পারবেন।

এটি মন্ত্রণালয়ের বেনিফিশিয়ারি কেয়ার এক্স অ্যাকাউন্টের একটি অনুসন্ধানের প্রতিক্রিয়ায় এসেছে, জিজ্ঞাসা করা হয়েছে যে, “কর্মচারী একটি সংস্থা বা কোম্পানিতে নিবন্ধিত নয়?” উভয়ই পরিসরে গণনা করা হয়।”

প্রশ্ন করলে জবাবে, মন্ত্রনালয় বলেছে যে “বেসরকারি খাতের কর্মচারীদের দুটি কাজ একত্রিত করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।”

আরও পড়ুন নিজ মাতৃভূমিতে পরাধীন ফিলিস্তিনের মানুষ,যার জন্য দায়ী পশ্চিমা বিশ্ব!

তারা আরও বলেন এই ক্ষেত্রে, কর্মসংস্থান চুক্তি এবং সুবিধার অভ্যন্তরীণ প্রবিধানগুলির সাথে পরামর্শ করা উচিত ।চাকরি দুটি একত্রিত করার কোন প্রয়োজন নেই।

যে কারণে নির্বাচন থেকে সরে দাড়ালেন আবদুস সবুর লিটন

মোঃহাসান মিয়া:চট্টগ্রাম-১০ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে চেয়ে ছিলেন আবদুস সবুর লিটন।তিনি নির্বাচন কমিশন থেকে মনোনয়ন পত্র নিয়েছিলেন চট্টগ্রাম-১০ আসনের জন্য।তিনি চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন প্যানেল মেয়র ও ২৫ নম্বর রামপুরা ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এবং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ।

  কেন স্বতন্ত্র প্রার্থী থেকে সরে দাঁড়ালেন আবদুস সবুর লিটন?

আবদুস সবুর লিটন চট্টগ্রাম-১০ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে নির্বাচন কমিশন থেকে মনোনয়ন পত্র নিলেও ,তা তিনি জমা দেননি।কিন্ত কেন?

রোববার (৩ ডিসেম্বর) দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, চট্টগ্রাম-১০ আসনে আমি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করলেও মনোনয়নপত্র দাখিল করিনি। কারণ বঙ্গবন্ধু আদর্শের অনুসারী হিসেবে আমি কখনও আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের বাইরে যাইনি।

তিনি আরও বলেন, চট্টগ্রাম-১০ আসনে আমি নৌকা প্রতীকের জন্য মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলাম।যেহেতু নৌকা পাইনি, সেহেতু নির্বাচন করব না। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে দাড়ানোর সুযোগ থাকলেও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তের প্রতি সম্মান রেখেই আমি আমার প্রার্থীতা থেকে সরে দাড়ালাম। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করব। নৌকার প্রার্থীর জন্য কাজ করব।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দায়িত্ব নেওয়ার পর বদলে গেছে চট্টগ্রামের চিত্র। আখতারুজ্জামান ফ্লাইওভার, এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী এক্সপ্রেসওয়ে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেল, মিরসরাইয়ে বঙ্গবন্ধু ইকোনোমিক জোনসহ অনেকগুলো মেগা প্রকল্প বাস্তবায়িত হয়েছে। এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য আগামীতে সবাইকে নৌকায় ভোট দেওয়ার আহ্বান জানাই।

ঢাকা,চট্টগ্রাম,নোয়াখালীসহ দেশের বিভিন্ন স্থালে ৫+মাত্রার ভূমিকম্প

বিসিএন২৪ ডেস্ক: ঢাকা,চট্টগ্রাম,নোয়াখালীসহ দেশের বিভিন্ন স্থালে ভূমিকম্প অনুভূত  হয়েছে।সকাল সাড়ে ৯টার পর এই ভূমিকম্প অনুভূত হয়।

আবহাওয়া অফিসের তথ্য মতে এই ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৫দশমিক৬।এই ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল কুমিল্লা থেকে ৪৫কি.মি. দক্ষিণে।

 

বিএনপির সাথে কী যোগ দিবে পীর সাহেব চরমোনাই ?

এই ভূমিকম্পে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি ।তবে অনেকেই ভূমিকম্পের কারণে আতঙ্ক হয়ে পড়েন।সকালে হঠাৎ এই ভূমিকম্প অনুভূত হলে,অনেকেই ঘর থেকে বাহিরে বের হয়ে যান।

বাংলাদেশে দূতাবাস বন্ধ করে দিয়েছে উত্তর কোরিয়া

বিসিএন২৪ ডেস্ক: ২০ নভেম্বর থেকে উত্তর কোরিয়া বাংলাদেশে অবস্থিত তাদের দূতাবাস বন্ধ করে দিয়েছে।

এখন থেকে উত্তর কোরিয়া বাংলাদেশের সাথে তাদের সংশ্লিষ্ট কাজ গুলো দিল্লি থেকে পরিচালনা করবে।তবে কেন উত্তর কোরিয়া বাংলাদেশে তাদের দূতাবাস বন্ধ করেছে,তা স্পস্ট করে জানা না গেলেও
অনেকেই মনে করে অর্থ সংকটের কারণে উত্তর কোরিয়া বাংলাদেশে দূতাবাস বন্ধ করে দিয়েছে।

উত্তর কোরিয়া  নেপাল থেকেও তাদের দূতাবাস স্থানান্তর করেছে।

১৯৭৪ সাল থেকে বাংলাদেশে দূতাবাস ছিল উত্তর কোরিয়ার।তবে দেশটির রাষ্ট্রদূত খুব শীঘ্রই বাংলাদেশে তাদের দূতাবাস পুনরায় চালু করবে জানিয়েছেন।

 

বিএনপির সাথে কী যোগ দিবে পীর সাহেব চরমোনাই ?

বিসিএন২৪ডেস্ক:নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের জন্য নানা কর্মসূচি পালন করে যাচ্ছে বিএনপি।এখন প্রশ্ন হলো বিএনপির সাথে কী পীর সাহেব চরমোনাই যোগ দিবেন?

পীর সাহেব চরমোনাইকে বিএনপির সাথে ঐক্যের ব্যাপারে প্রশ্ন করলে,তিনি সাংবাদিকদেরকে বলেন,নিরপেক্ষ,নির্দলীয়,গ্রহণযোগ্য নির্বচনের ব্যাপারে আমরা সবাই ঐক্য মত।এই ব্যাপারে প্রত্যেক জায়গা থেকে একই বক্তব্য আসছে এমন মনে করেন পীর সাহেব চরমোনাই।

তিনি আরও বলেন,আমাদের দাবির উপর সবার ঐক্য মত আছে।এখন পর্যন্ত আমরা কারো সাথে আন্দোলন করি নাই।অন্য কোনো দলের সাথে তারা আতাত করবেন বলেও জানিয়ে দেন।তবে ভবিষ্যতে কি হবে তা তিনি স্পস্ট করে বলেননি।তিনি আরও বলেন, ভবিষ্যতে বিএনপির সাথে এক সাথে আন্দোলন করবে কিনা তা সময় বলে দিবে।বিএনপির দাবির সাথে তারা এক মত পোষন করেছেন।

বিএনপির কর্মসূচিতে অংশ গ্রহণ করবেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন,পরিস্থিতি বলে দিবে বিএনপির কর্মসূচিতে অংশ গ্রহণ করবো কিনা।

তিনি আরও বলেন,সমস্ত নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের অংশের ভিত্তিতে জাতীয় সরকার হবে,তারাই নির্ধারণ করবে জাতীয় সরকার প্রধান কে হবে।

পীর সাহেব চরমোনাই দলের যে সব নেতা কর্মী আন্দোলন করতে গিয়ে জেলে গিয়েছে,তিনি তাদের মুক্তি কামনা করেন।

লোহাগাড়া যুবলীগের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ

হাসান মিয়া:চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কর্তৃক ঘোষিত কর্মসূচীর আলোকে তৃতীয় দিনের মত বিএনপির অবরোধের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে উপজেলা যুবলীগ।

২ (নভেম্বর)বৃহস্পতিবার সকালে ১০টার দিকে বটতলী মোটর স্টেশনের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে বিক্ষোভ মিছিলটি শেষ হয়। লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের আহবায়ক মোহাম্মদ জহির উদ্দিন এবং আবদুল হান্নান মোহাম্মদ ফারুকের যৌথ নেতৃত্বে বিভিন্ন ইউনিয়নের যুবলীগের নেতাকর্মী ও আওয়ামী লীগের অংগসংগঠনের নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে যোগদান করে।
এসময় বিএনপি-জামায়াতের বিরুদ্ধে স্লোগানে স্লোগানে মুখরিত হয়ে ওঠে পুরো বটতলী মোটর ষ্টেশন। পরে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে আওয়ামী যুবলীগের নেতাকর্মীরা।
সমাবেশে যুবলীগ নেতা মোহাম্মদ জহির উদ্দিন বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াতের কোনো চক্রান্ত বাংলার মার্টিতে সফল হবে না।
বিএনপি-জামায়াতকে প্রতিহত করতে আওয়ামী যুবলীগ যথেষ্ট। বিএনপিকে প্রতিরোধ করতে যুবলীগ সদা প্রস্তুত রয়েছে। বিএনপিকে প্রতিহত করতে দেশের মানুষের জানমাল রক্ষায় যুবলীগের নেতাকর্মীরা রাজপথে সতর্ক অবস্থানে থাকবেন বলেও জানান তিনি ।

লোহাগাড়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে হয়ে যুবকের মৃত্যু

হাসান মিয়া:চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার পদুয়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে অজয় দাশ (২৬) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।

আজ সকাল ১১টার দিকে পদুয়া স্কুল রোডে এই ঘটনা ঘটে। অজয় দাশ পদুয়া হিন্দু পাড়ার মেঘ নাথের ছেলে।

সরেজমিনে গিয়ে জানতে পারি পদুয়া স্কুল রোডে ডিস লাইনে কাজ করার সময় অ-সাবধানতাবশত বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন অজয় দাশ(২৬)। স্থানীয়রা দেখার পর তাকে দ্রুত উদ্ধার করে লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. মো. সোহেল উদ্দিন জানান, স্থানীয়রা হাসপাতালে নিয়ে আসার আগেই অজয় দাশের মৃত্যু হয়েছে।

লোহাগাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাশেদুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে ফোর্স পাঠায় এবং আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিজ মাতৃভূমিতে পরাধীন ফিলিস্তিনের মানুষ,যার জন্য দায়ী পশ্চিমা বিশ্ব!

মানিক চেীধুরী:নিজ মাতৃভূমিতে পরাধীণ ফিলিস্তিনের মানুষ।এর জন্য দায়ী পশ্চিমা বিশ্ব।ইসরাইলকে ফিলিস্তিন দখল করতে সহযোগিতা করেন,আমেরিকা সহ পুরো পশ্চিমা বিশ্ব।পশ্চিমা বিশ্ব কিভাবে ইহুদিদেরকে ফিলিস্তিনের ভূমি দখল করে,ইসরাইল নামক রাস্ট্র গঠন করতে সহযোগিতা করেছিল,তা ইসরাইল রাস্ট্র প্রতিষ্ঠার ইতিহাস পড়লে জানা যাবে।

নিজ মাতৃভূমিতে নিজেরাই মেীলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে ফিলিস্তিনের সাধারণ মানুষ।কার মদদে ফিলিস্তিনিরা তাদের মেীলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে?  নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো

ইসরাইল রাস্ট্র প্রতিষ্ঠার ইতিহাস আলোচনা করার আগে একটু আমেরিকার মুখোশ খুলে দিতে চাই।আমেরিকা সব সময় মানবাধিকার নিয়ে কথা বলতে শোনা যায়।কিন্তু এই আমেরিকাই প্রতিনিয়ত মানবাধিকার লঙ্গন করে চলছে।

ইসরাইল বিনাবিচারে সাধারণ ফিলিস্তিনিদেরকে হত্যা ও  তাদের উপর হামলা করেই যাচ্ছে।আমেরিকাকে সাধারণ ফিলিস্তিনিদেরকে হত্যা ও তাদের উপর হামলা বেপারে কিছু বলতে শুনা যায় না।উল্টো আমেরিকা সাধারণ ফিলিস্তিনিদেরকে হত্যা ও তাদের উপর হামলা জন্য ইসরাইলকে সামরিক সহায়তা করেই যাচ্ছে।

ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধে আমেরিকাসহ পুরো পশ্চিমা বিশ্ব,ইউক্রেনকে সমরিক ও আর্থিক সহযোগিতা করে যাচ্ছে।কিন্তু ফিলিস্তিনিদের ক্ষেত্রে উল্টা চিত্র দেখা যাচ্ছে।পশ্চিমা বিশ্ব দখলদার ইসরাইলের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা না,উল্টো ইসরাইলকে সহায়তা করে যাচ্ছে।এতে বুঝায়,আমেরিকা ও পশ্চিমা বিশ্ব মানবাধিকারের চেয়ে,নিজেদের স্বার্থকেই বেশি প্রধান্যদেন এবং মুসলমান বিরোধী  আচরণ করেন।

আমেরিকা ও পশ্চিমা বিশ্ব হামাসকে সন্ত্রাসী আখ্যায়িত করলেও,দীর্ঘ দিন ধরে ইসরাইল নিরীহ ফিলিস্তিনিদের উপর যে বরবর হামলা চালায় তার বেপারে কোনো পদক্ষেপ নেওয়া তো দূরের কথা,জোরালো ভাবে কোনো কথা বলতে শুনা যায় না।আমেরিকা এবং পশ্চিমা বিশ্বের কারেণেই ইসরাইল ফিলিস্তিনিদের উপর নিশংস হত্যাকান্ড চালানোর সাহস পান বলে অনেকে মনে করেন।

আমেরিকার ফিলিস্তিন বিরোধী আচরনের কারণে আমেরিকার উপর ক্ষুব্ধ মুসলিম বিশ্ব।

ট্রাক্টর চুরির মামলায় ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা সহ গ্রেফতার ৬ জন।

বিসিএন২৪ডেস্ক:ট্রাক্টর চুরির মামলায় ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা সহ ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।সবাই কুমিল্লার মনোহরগঞ্জে আন্তঃজেলা গাড়ী চোর চক্রের সাথে জড়িত।

এই চক্রের সদস্যদের মধ্যে আবদুল কাইয়ুম রবিন ২নং কেশারপাড় ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কর্মী এবং ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী বলে একটি মাধ্যমে জানা যায়।

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জে আন্তঃজেলা গাড়ী চোর চক্রের ৬ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।শনিবার দিবাগত রাতে মনোহরগঞ্জ থানাধীন নাথেরপেটুয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ জাফর ইকবাল ও এসআই আশিকুল ইসলামের নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্স অভিযান চালিয়ে নোয়াখালী জেলার সেনবাগ ও লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতির বিভিন্ন স্থান থেকে তথ্য প্রযুক্তি সহায়তায় ওই আন্তঃজেলা চোর চক্ররের সদস্যদের গ্রেফতার করে।
এবং চুরি হওয়া গাড়ী উদ্ধার করেন।
গ্রেফতারকৃত চোর চক্রের সদস্যরা হলেন- নোয়াখালী জেলার সেনবাগ উপজেলার ছাতারপাইয়া গ্রামের আবদুল জলিলের ছেলে সুজন (২৩), জয়নগর গ্রামের মৃত বশির আহমদের ছেলে ইসমাইল হোসেন (৩৫), খাজুরিয়া গ্রামের শাহ আলমের ছেলে রিপন মিয়া ড্রাইভার (৩০), ইটবাড়িয়া গ্রামের গাজী আবদুর রবের ছেলে আবদুল কাইয়ুম (৩০), উত্তর শাহপুর গ্রামের মোঃ আবদুর রবের ছেলে জসিম উদ্দিন (৩৮) ও রামগতি উপজেলার পূর্ব চরসিথা গ্রামের মৃত আবুল কাশেমের ছেলে সালেহ উদ্দিন (৩২)।
জানা যায়, গত ২২ জুলাই উপজেলার নাথেরপেটুয়া অটোপার্টসের স্বত্বাধিকারী মোঃ মানিকের একটি টাফি ট্যাক্টর চুরি হয়। পরে তিনি গত ২৩ জুলাই বাদী হয়ে মনোহরগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
এর সূত্র ধরে তথ্য-প্রযুক্তির সহায়তায় শনিবার (৫ আগস্ট) নোয়াখালীর সেনবাগ থেকে প্রথমে সুজনকে, পরে সুজনের দেয়া তথ্যমতে, চোরাইকৃত ৩৫ মডেলের ১টি টাফি ট্রাক্টর উদ্ধার করা হয় এবং বাকী চোরদের গ্রেফতার করা হয়। এ বিষয়ে মনোহরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শফিউল আলম গ্রেফতারে বিষয় নিশ্চিত করে বলেন গ্রেফতারকৃত আন্তঃজেলা চোর চক্রের ওই ৬ সদস্যকে কুমিল্লা কোর্টের প্রেরণ করা হয়েছে।
এদিকে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ এলাকার শুয়া গাজী থেকে মোঃ খলিল চৌধুরীর ১টি ও লাকসামের চন্দনা বাজার জন্টু মার্কেট থেকে বদিউল আলমের ১টিসহ সম্প্রতি লাকসাম, মনোহরগঞ্জ, নাঙ্গলকোট, কুমিল্লা সদর দক্ষিণ এলাকা থেকে কয়েকটি ট্যাক্টর গাড়ী চুরি হওয়া খবর পাওয়া যায় । খলিল চৌধুরী ও বদিউল আলম জানান, গ্রেফতারকৃত চোরদের জিজ্ঞাসাবাদ করলে আমাদের চুরি হওয়া গাড়ীর তথ্যও বেরিয়ে আসবে। ভূক্তভোগী মালিকরা, তাদের গাড়ী উদ্ধারে প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেন।